পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড | West Bengal Ration Card 2022 - Details in Bengali

Sunday, December 12 2021, 3:05 am
highlightKey Highlights

সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গে ডিজিটাল রেশন কার্ডের একটি অভিনব ধারণা চালু করা হয়েছে যার মাধ্যমে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বাসিন্দার রেশন কার্ড টি ডিজিটাল পদ্ধতিতে উপলব্ধ করা যাবে। Everything about E Ration Card of West Bengal, how to download, check status and all details in Bangla language.


রেশনকার্ড মানুষের অন্যতম প্রয়োজনীয় একটি নথি যা একজনকে সেই দেশের বাসিন্দা রূপে পরিচিতি প্রদান করতে সাহায্য করে। এটি একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ সরকারি প্রমাণপত্র হিসাবে ধার্য করা হয় । ডিজিটাল রেশন কার্ড বাস্তবায়নের ফলে নাগরিকরা অনেক সুবিধা পাবেন কারণ মানুষকে আর সর্বক্ষেত্রে নিজেদের পুরানো কাগজের রেশন কার্ডটি বহন করতে হবে না , বাসিন্দার পক্ষে যে কোনও সময়ে এটি সরবরাহ করা ও খুব সহজ হবে। ডিজিটাল রেশন কার্ড হল ডিজিটালাইজেশন প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে একটি অভিনব এবং দুর্দান্ত পদক্ষেপ যা ভারতে চলছে অনেক দিন ধরে।

পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড আপডেট | West Bengal Ration Card 2022 Update

পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যের সেই সকল নাগরিকদের সুবিধার্থে কুপনের ব্যবস্থা করেছে যাদের কাছে এখনও ডিজিটাল রেশন কার্ড উপলব্ধ নেই। প্রয়োজনে জেলা সদর, বিডিও, এসডিও বা সংশ্লিষ্ট পৌরসভার বিভাগ থেকে কুপনের জন্য নাগরিকবৃন্দ রা আবেদন করতে পারবেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকার লকডাউনের সময়কালীন পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ভর্তুকিযুক্ত হারে রেশন ঘোষণা করেছে। সে নিয়ম অনুযায়ী লকডাউনের সময় কাল থেকে ৬ মাসের জন্য পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দারা রেশন পাবেন কেজি প্রতি ৫ টাকা হারে।

West Bengal Ration Card Official website | পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড ওয়েবসাইট 

পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ডের শ্রেণিবিভাগ | West Bengal WBPDS Digital Ration Card category

WB Digital Ration Card এর কতো গুলো ভাগ রয়েছে তা নিম্নে উল্লেখিত হলো,

  • RKSY-I, 
  • RKSY-II,
  • PHH,
  • SPHH,
  • AAY,
  • GEN

পশ্চিমবঙ্গের ডিজিটাল রেশন কার্ডর ইতিহাস | History of Ration Card

২০২১ সালের ২৭ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ডের ৫ বছর পূর্ণ হয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ সরকার উক্ত দিনটিকে খাদ্য সাথী দিবস হিসাবে পালন করছে। পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ডের মাধ্যমে সরকার অতিমারি জনিত লকডাউনের সময় বাংলার ১০ কোটি মানুষকে খাদ্য সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে পেরেছে। এছাড়া পশ্চিমবঙ্গ সরকারও প্রত্যেক বাসিন্দাকে বিনামূল্যে রেশন সরবরাহ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই প্রকল্পটি চালু করা হয় ২০১৬ সালের ২৭ জানুয়ারি।

পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড চালু করার মূল উদ্দেশ্য হ’ল কেজি প্রতি ২ টাকা দরে চাল ও গম সরবরাহ করা । এই প্রকল্পটি পশ্চিমবঙ্গে বসবাসকারী প্রায় ৭ কোটি মানুষের জন্য উপকারী সাব্যস্ত হয়েছে যারা কিনা পশ্চিমবঙ্গের ৯০% জনসংখ্যা নিয়ে গঠিত। তা ছাড়াও পশ্চিমবঙ্গ সরকার জনগণের কল্যাণার্থে বাজারের অর্ধেক দামে ৫০ লক্ষ মানুষের জন্য রেশন উপলব্ধ করেছে। 

যোগ্যতার মানদণ্ড | West Bengal Ration Card Types 2022 - Eligibility

নতুন পশ্চিমবঙ্গ ডিজিটাল রেশন কার্ড প্রকল্পের সুবিধাভোগী হওয়ার জন্য আবেদনকারীকে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিম্নলিখিত যোগ্যতার মানদণ্ড অনুসরণ করতে হবে, 

  1. আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের আইনী ও স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  2. আবেদনকারীর পুরানো রেশন কার্ড থাকা বাঞ্ছনীয় ।
  3. যে আবেদনকারী অস্থায়ী রেশন কার্ড রয়েছে বা তার মেয়াদ শেষ হয়ে গিয়েছে তিনি এই প্রকল্পের অধীনে নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।
  4. নবদম্পতিরা এই প্রকল্পের আওতায় নতুন রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারেন।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস | West Bengal Ration Card 2022 - Required Documents

  1. বৈধতার জন্য মোবাইল নম্বর।
  2. শনাক্তকরণের জন্য আধার কার্ড।
  3. সনাক্তকরণের জন্য ভোটার আইডি অথবা ইপিআইসি।
  4. প্যান কার্ডই
  5. মেইল আইডি
  6. পুরানো রেশন কার্ড (প্রযোজ্য হিসাবে)
  7. বয়সের প্রমাণ

ডিজিটাল রেশন কার্ড অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া | Paschimbanga Ration Card 2022 : Registration Process

হোমপেজে, ভর্তুকিবিহীন রেশন বা ভর্তুকিবিহীন রেশন কার্ডে রূপান্তরের জন্য “আবেদন করতে এখানে ক্লিক করুন” https://wbpds.gov.in/ or https://food.wb.gov.in/index.aspx এ ক্লিক করতে হবে;

ডিজিটাল রেশন কার্ড অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া
ডিজিটাল রেশন কার্ড অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া
  • তারপর নিজের মোবাইল নম্বর লিখতে হবে।
  •  'গেট ওটিপি' অপশনে ক্লিক করার পর ওটিপি টি লিখতে হবে।
  • নম্বরটি যাচাই করতে যাচাই ট্যাবে ক্লিক করতে হবে; তারপর আবেদনকারী কেনিজের বিকল্পটি নির্বাচন করে আবেদন পত্রটি পূরণ করতে হবে।
  • এরপর 'শো মেম্বার' বোতামে ক্লিক করলে বিশদ তথ্যটি প্রদর্শিত হবে।
  • অন্য সদস্য যুক্ত ট্যাবে ক্লিক করে, আবেদনকারীরা চাইলে পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের ও বিশদ যোগ করতে পারেন। 
  • পরিশেষে, প্রদান করা তথ্যগুলি save বা সংরক্ষণ করতে হবে এবং অ্যাপ্লিকেশন ট্যাবে ক্লিক করতে হবে;বিশদ যাচাই করার পর সাবমিট বোতামে ক্লিক করতে হবে। 
  • তারপরঅ্যাপ্লিকেশন নম্বর টি উৎপন্ন হবে।ভবিষ্যতে ব্যবহারের জন্য এটি নিরাপদে রেখে দিতে হবে আবেদনকারীকে।

ডিজিটাল রেশন কার্ডের উপকারিতা | Benefits of E Ration Card of West Bengal

  • রেশন কার্ডের মাধ্যমে সুবিধাভোগী স্বল্প দামে সরকারের কাছ থেকে খাদ্যশস্য পান।
  • সুবিধাভোগী রেশন কার্ডের সাহায্যে সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের সুবিধা গ্রহণ করতে পারবেন।
  • ডিজিটাল রেশন কার্ড শনাক্ত করার কাজেও বহুল ব্যবহৃত হয়ে থাকে; যেমন একটি আধার কার্ড, ভোটার আইডি, বা পাসপোর্ট মাধ্যমে আমরা যে সুবিধাগুলো পেয়ে থাকি।
  • রেশন কার্ডের মাধ্যমে সুবিধাভোগীরা সরকারের আসন্ন প্রকল্পগুলির অংশ হতে পারবেন এবং সর্বোচ্চ সুবিধা পেতে পারেন। 
  • নতুন সিম কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, ইত্যাদি র মতো জিনিস তৈরির জন্যও রেশন কার্ডের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে।
  • রেশন কার্ড সরকারী বিদ্যালয়ে শিশুদের ভর্তির জন্য সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ নথি ।ডিজিটাল রেশন কার্ড হওয়ার ফলে মানুষকে পুরাতন কাগজের কার্ডটি আর বহন করতে হবে না ।
  • এখন এটিএম থেকে শুরু করে সমস্ত কিছু স্মার্ট কার্ডের মতন এই রেশন কার্ড ও মানুষ তার সঙ্গে খুব সহজেই বহন করতে পারবে।

ডিজিটাল রেশন কার্ড সম্পর্কিত বিভিন্ন ফর্ম | Application Forms for Bengal E-Ration Card

একটি পরিবারের সমস্ত সদস্যদের জন্য নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করার ক্ষেত্রে পশ্চিমবঙ্গ সরকার অনেক সুবিধা করে দিয়েছে। যেমন:-

যদি আপনার পরিবারে কেউ নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড না পেয়ে থাকে তবে আপনি ফর্ম নাম্বার ৩ এর সাহায্যে নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ড এর জন্য আবেদন করতে পারবেন।

পরিবারের মধ্যে যদি এক জনের ও ডিজিটাল রেশন কার্ড থেকে থাকে, তবে আপনাকে ফরম নাম্বার ৪ পূরণ করতে হবে যাতে আপনার পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নাম আপনার নামের সঙ্গে যুক্ত করা হয় ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য।

তবেএ ক্ষেত্রে বিশেষভাবে উল্লেখ্য, যদি পরিবারের কোনো সদস্যেরই অনলাইন রেশন কার্ড না থাকে তবে সর্বপ্রথম ফর্ম নম্বর তিন পূরণ করতে হবে। 

E Ration Card west Benagal Status Check |  অনলাইন রেশন কার্ড স্ট্যাটাস চেক

ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আপনার আবেদনের স্টেটাস( status) পরীক্ষা করতে, আবেদনকারীকে নীচে দেওয়া নিম্নলিখিত প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করতে হবে,

লগইন ছাড়াও অনলাইন রেশন কার্ড স্ট্যাটাস চেক করার জন্য নিচের লিঙ্কটিতে ক্লিক করতে হবে ,

অনলাইন রেশন কার্ড স্ট্যাটাস চেক 
অনলাইন রেশন কার্ড স্ট্যাটাস চেক 

Otherwise, you can visit the Official Website, then click on Inquiry on the sidebar and click on Check Ration Card Application Status

Apply for E Ration Card West Bengal 

এই পদ্ধতি অবলম্বন করলে সহজেই আবেদনকারী নতুন ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন অনলাইনে পশ্চিমবঙ্গ ফুড এন্ড সাপ্লাই ডিপার্টমেন্ট এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে। 

অফলাইনে ডিজিটাল রেশন কার্ড এর জন্য আবেদন করার প্রক্রিয়া

অফলাইনে পশ্চিমবঙ্গের ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য আবেদন করতে হলে পশ্চিমবঙ্গ সরকার এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত অনুসারে নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে হবে।

প্রথমে ডিজিটাল রেশনকার্ড সংক্রান্ত অফিশিয়াল লিঙ্কটি তে ক্লিক করতে হবে । গ্রামীণ অঞ্চলের জন্য লিংকে গিয়ে ফর্ম টি ডাউনলোড করতে হবে।

দু টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য:-

  • #Form X for Non-Subsidised Ration Card (Rural Area)
  • #Form X for Non-Subsidised Ration Card (Urban Area)

ডাউনলোড হয়ে যাওয়ার পরবর্তীকালে আবেদনকারীকে নিজের সমস্ত বিবরণ দিয়ে ফর্মটিকে ফিলাপ করতে হবে । নিজের সমস্ত ডকুমেন্টস সংযুক্ত করতে হবে অর্থাৎ প্রয়োজনীয় নথিগুলির জেরক্স কপি ফর্মটির সাথে সংযুক্ত করতে হবে ।
পরবর্তীতে আবেদনকারীকে স্থানীয় খাদ্য ও সরবরাহ দপ্তর রেশনিং অফিসে গিয়ে অফিসারের কাছে তা জমা করতে হবে

WBPDS Duplicate Ration Card এ জন্য আবেদন করতে হলে

ডাব্লুবিপিডিএস অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে হোম পৃষ্ঠাটি প্রদর্শিত হবার পর আবেদনকারীকে সেই হোম পেজে নাগরিক ট্যাবে ক্লিক করতে হবে।এখানে নকল রেশন কার্ডের জন্য আবেদনে ক্লিক করতে হবে। এরপর আবেদনকারীর সামনে একটি নতুন পৃষ্ঠা প্রদর্শিত হবে যেখানে আবেদনকারীকে প্রয়োজনীয় সমস্ত বিবরণ প্রদান করতে হবে। অবশেষে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে ।

ক্যাটেগরি পরিবর্তন করার প্রক্রিয়া ~ Procedure To Change Category (RKSY-II To RKSY-I)

অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে নাগরিক ট্যাবে ক্লিক করতে হবে আবেদনকারীকে । এর পরে অ্যাপ্লিকেশন টু চেঞ্জ বিভাগে (আরকেএসওয়াই -২ থেকে আরকেএসওয়াই -২) ক্লিক করতে হবে। আবেদনকারীকে নিজের মোবাইল নম্বরটি প্রদান করতে হবে এবং get OTP বাটনেএ ক্লিক করতে হবে। ওটিপি বক্সে ওটিপি প্রবেশ করার পর আবেদনকারীর সামনে
একটি নতুন পৃষ্ঠা প্রদর্শিত হবে যেখানে তাঁকে সমস্ত প্রয়োজনীয় বিশদ তথ্য সংযোজন করতে হবে । সমস্ত তথ্য প্রদান করা হয়ে গেলে save করে সাবমিট বাটনে ক্লিক করতে হবে ।

ডিজিটাল রেশন কার্ডে নিজের নাম পরিবর্তন করতে গেলে | (Change Name And Details In Ration Card)

 অফিসিয়াল ওয়েবসাইট এ গিয়ে নাগরিক ট্যাবে ক্লিক করতে হবে এবং পরবর্তীকালে রেশন কার্ডে পরিবর্তন
নাম(Change Name On Ration Card)
বা অন্যান্য বিবরণে ক্লিক করতে হবে। এরপর আবেদনকারীর সামনে একটি নতুন পৃষ্ঠা প্রদর্শিত হবে। এই পৃষ্ঠায় সমস্ত প্রয়োজনীয় বিশদ লিখতে হবে এবং শেষে আবেদনকারীকে সাবমিটে ক্লিক করতে হবে।

ই রেশন কার্ড ডাউনলোড | How to Download West Bengal E Ration 

ই রেশন কার্ড ডাউনলোড করতে লিঙ্কটিতে ক্লিক করুন

ই রেশন কার্ড ডাউনলোড
ই রেশন কার্ড ডাউনলোড

নিকটবর্তী রেশন আফিস অনুসন্ধান করতে -  (Find Your WBPDS(ডাব্লুবিপিডিএস) Nearest Ration Shop)

অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি গিয়ে “ই-নাগরিক” বিকল্পে যেতে হবে। তারপত ক্লিক করতে হবে ” আপনার নিকটবর্তী রেশন দোকান চিহ্নিতকরণ “। এরপর ডিডিপিএস / ডিআর, ডিসিএফএস / জেডি, এসসিএফএস / আরও, ব্লক অফিস প্রবেশ করতে হবে ।
“ডিসপ্লে এফপিএস” বিকল্পটি ক্লিক করতে হবে ।আবেদনকারীর নিকটবর্তী রেশন অফিসের তালিকাটি স্ক্রিনে উপস্থিত হবে।

Adhaar aar Ration Card Linking Korben Kivabe

West Bengal E Ration Helpline Number & Email Address

ফোন: 1800 345 5505/1967 (নিখরচায়)

ইমেল: itcellfswb1@gmail.com

প্রশ্নোত্তর - Frequently Asked Questions

WB Digital Ration Card এর কতো গুলো ভাগ রয়েছে ?

WB Digital Ration Card এর বিভাগ গুলি হলো, RKSY-I, RKSY-II, PHH, SPHH, AAY, GEN

ডিজিটাল রেশন কার্ডের সুবিধা লাভ করার জন্য আবেদনের ক্ষেত্রে কী কী প্রয়োজনীয় নথি বা ডকুমেন্ট লাগবে ?

প্রয়োজনীয় নথি বা ডকুমেন্টস গুলি হল : বৈধতার জন্য মোবাইল নম্বর।, শনাক্তকরণের জন্য আধার কার্ড।, সনাক্তকরণের জন্য ভোটার আইডি অথবা ইপিআইসি।, প্যান কার্ড, ইমেইল আইডি, পুরানো রেশন কার্ড (প্রযোজ্য হিসাবে), বয়সের প্রমা

ডিজিটাল রেশন কার্ডের অফিশিয়াল ওয়েবসাইট টি কি ?

খাদ্য দফতরের ওয়েবসাইট www.wbpds.gov.in / https://food.wb.gov.in/index.aspx -এ গিয়ে আবেদন করা যেতে পারে ডিজিটাল রেশন কার্ডের জন্য।


Contents ( Show )

telegram channel Viral News on Telegram