৫ টি রোমহর্ষক বাংলা ভূতের সিনেমা

BENGALBYTE.IN

কুহেলি

চিত্রপরিচালক তরুণ মজুমদারের অন্যতম বিখ্যাত ছায়াছবি কুহেলি তে নিজের স্ত্রীর মৃত্যুর পর চলচ্চিত্রের অন্যতম মুখ্য চরিত্র শঙ্কর তার মেয়ে রানুর দেখাশোনার জন্য শেবাকে নিয়োগ করে। ঘটনাটি টানটান উত্তেজনাপূর্ণ হয়ে ওঠে এবং তা একটি নতুন দিকে মোড় নেয় যখন সেবা বাড়িতে একটি অতিপ্রাকৃত শক্তির উপস্থিতি আবিষ্কার করে।

কঙ্কাল

নরেশ মিত্র পরিচালিত বাংলা ভাষায় মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম হরর ফিল্ম হল , 'কঙ্কাল' যেখানে গল্পের নায়িকা তরলার প্রতিহিংসাপরায়ণ আত্মা পুনরুজ্জীবিত হয় ও সে কিভাবে নিজের মৃত্যুর প্রতিশোধ নেয় তার প্রাক্তন প্রেমিক অভয়ের থেকে সেটাই হল এই চলচ্চিত্রের মূল উপপাদ্য বিষয় ।

হানাবাড়ি

প্রখ্যাত সাহিত্যিক প্রেমেন্দ্র মিত্রের কাহিনি অবলম্বনে 'হানাবাড়ি' ছবিটিতে খুনি হলেন পেশায় একজন চিত্রশিল্পী যিনি কিনা একটি জরাজীর্ণ বাড়িতে সকলকে আতঙ্কগ্রস্ত করার জন্য একটি গরিলার পোশাক পরে থাকেন এবং ছবিটিকে দৃশ্যমান নীচে যে সুড়ঙ্গটি চলে গেছে সেখানেই রয়েছে রহস্যের আসল চাবিকাঠি!!

ক্ষুধিত পাষাণ

বীন্দ্রনাথঠাকুরের গল্প অবলম্বনে তপন সিনহার পরিচালনায় ক্ষুধিত পাষাণ ছবিটিতে একজন কর আদায়কারী ব্যক্তি একটি প্রাচীন দুর্গে থাকাকালীন একজন মহিলার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন তবে ঘটনাক্রমে তিনি হতবাক হয়ে যান যখন বুঝতে পারেন যে মহিলাকে একটি আত্মা।

মণিহারা

১৯৬১ সালে সত্যজিৎ রয়ের অনবদ্য পরিচালনায় ও রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গল্প অবলম্বনে বাংলা চলচ্চিত্র জগৎ পেয়েছিল ‘তিন কন্যা’ এবং এই সিরিজেরই একটি রোমহর্ষক ছায়াছবি ছিল ‘মণিহারা’। গল্পটি এক মহিলাকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়েছে এবং এটি একটি চিরাচরিত অতৃপ্ত আত্মার গল্প

এরকম আরো দারুন সুন্দর স্টোরি এর জন্যে সোয়াইপ আপ অথবা নিচের লিংকে ক্লিক করুন ( For More Amazing Contents Like This, Swipe Up or Click The Below Button)